a
Sorry, no posts matched your criteria.
My Bookmarks
  • No bookmark found
Image Alt
 • চুলের যত্ন  • মজবুত এবং ঘন চুলের জন্য নারিকেল এবং মেহেদীর উপকারিতা

মজবুত এবং ঘন চুলের জন্য নারিকেল এবং মেহেদীর উপকারিতা

Bookmark CFL(0)
    • আর্দ্র আবহাওয়ার জন্য প্রচুর খুশকি দেখা দেয়, এই সমস্যা দূর করতে নারিকেল ও মেহেদী একসাথে মিশিয়ে চুলে ব্যবহার করা যেতে পারে।
    • নারিকেল চুলে আলাদা একটি আবরণ তৈরী করে যার ফলে চুল তার স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারায় না।
    • নিয়মিত মেহেদী পাতা ও নারিকেল একসাথে ব্যবহার করে চুলের আগা ফেটে যাওয়া বন্ধ হয়, গোড়া থেকে মজবুত হয় এবং চুল ভাঙা প্রতিরোধ করে চুলকে মজবুত ও ঘন করে তোলে।
    • মেহেদী পাতা ও নারিকেল ১০০% প্রাকৃতিক উপাদান হওয়ার কারণেই তাই চুলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ধরে রাখতে সহায়তা করে।

    এই গরমে মাথার ত্বকে প্রায়ই চুলকানি হয়। এছাড়া আর্দ্র আবহাওয়ার জন্য প্রচুর খুশকিও দেখা দেয়। এই সমস্যা দূর করতে নারিকেল ও মেহেদী একসাথে মিশিয়ে চুলে ব্যবহার করা যেতে পারে।

    নারিকেল তেলের ব্যবহার সম্পর্কে আমরা কম-বেশি সবাই জানি। নারিকেল ভিটামিন ই ও ফ্যাটি এসিডে ভরপুর তাই নারিকেল ব্যবহার চুলকে মজবুত করে তোলে। এছাড়া নারিকেল ব্যবহারে চুলের গোড়া  লালাগ্রন্থি থেকে সেবাম নির্গত হওয়ার পরিমাণ কমে যায় ফলে চুল দ্রুত বৃদ্ধি পায়। নারিকেল চুলে আলাদা একটি আবরণ তৈরী করে যার ফলে চুল তার স্বাভাবিক আর্দ্রতা হারায় না।

    সাধারণত চুলের রঙ সাদা হয়ে যাওয়ার সময় মানুষ রঙ করার জন্য চুলে মেহেদী ব্যবহার করে। বাজারে চুল রঙ করার যেসব সামগ্রী পাওয়া যায় অনেকে রাসায়নিক পদার্থ থাকায় সেসব ব্যবহার করতে চান না। সাধারণভাবে মেহেদী পাতা চুলে না লাগিয়ে যদি নারিকেল তেলের সাথে মিশিয়ে ব্যবহার করা হয় তাহলে এটা বেশি উপকার দেয়। কারণ মেহেদী পাতার উপকারের পাশাপাশি নারিকেল তেলের লরিক এসিড ও ক্যাপ্রিক এসিড চুলের বৃদ্ধি বাড়ায় এবং খুশকিও দূর করতে সাহায্য করে।

    মাথার ত্বকে জ্বালা-পোড়া ভাব হলে মেহেদী ব্যবহারে এটি কমে। এছাড়া এর এন্টি-মাইক্রবিয়াল বৈশিষ্ট্য মাথার ত্বককে ঠাণ্ডা রাখতে সাহায্য করে। মাথায় খুশকির কারণে চুল তার আর্দ্রতা ও স্বাভাবিক তৈলাক্ততা হারায়। মেহেদী ও নারিকেল একসাথে মিশিয়ে ব্যবহার করলে চুলের খুশকি দূর হয়, আর্দ্রতা বজায় থাকে ও চুলের স্বাভাবিক তৈলাক্ততা ধরে রাখতে সাহায্য করে।

    অনেকেরই চুলের আগার অংশ ফেটে যায়। নিয়মিত মেহেদী পাতা ও নারিকেল একসাথে ব্যবহার করে চুলের আগা ফেটে যাওয়া বন্ধ হয়, গোড়া থেকে মজবুত হয় এবং চুল ভাঙা প্রতিরোধ করে। মেহেদি প্রাকৃতিকভাবেই চুলের কন্ডিশনিং এর কাজ করে। এতে রয়েছে এন্টিঅক্সিডেন্ট, এন্টি-ভাইরাল, এন্টি-প্যারাসাইটিক এবং প্রোটিন গ্লাইক্যাশন ইনহিবিটর বৈশিষ্ট্য।

    মেহেদী পাতা ও নারিকেল ১০০% প্রাকৃতিক উপাদান হওয়ার কারণে  চুলের স্বাভাবিক  সৌন্দর্য্য ধরে রাখতে সহায়তা করে। নারিকেল তেলের সাথে মেহেদী পাতা সহজেই ব্যবহার করা যায়। মেহেদি পাতা ভালো করে পিষে নারিকেল তেলের ভিতর দিয়ে ভালো ভাবে গরম করতে হবে। এরপর সেটা পুরোপুরি ঠান্ডা করে মাথায় লাগিয়ে সারা রাত রেখে দিতে হবে। মাথায় লাগানোর সময় খেয়াল রাখতে হবে চোখের ভিতরে বা চোখের চারিপাশে যেনো মিশ্রণ লেগে না যায়। পরদিন সকালে শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে।

    নারিকেল চুলের গভীরে পৌঁছে পুষ্টি যোগায়, চুলকে মজবুত করে। অপরদিকে মেহেদী পাতার কন্ডিশনিং মাথার চুল ঘন করে। আর এই দুইয়ের মিশ্রণ চুল পড়া রোধে অত্যন্ত কার্যকর এবং এটি চুলকে করে তোলে মজবুত, ঘন ও সুন্দর।

    Sources:  https://www.beautyglimpse.com/diy-how-to-make-henna-hair-oil-for-hair-growth/#:~:text=Henna%20Hair%20Oil%20with%20Dry%20Henna%20Leaves,-In%20this%20modified&text=Grind%20the%20dried%20henna%20leaves,oil%20will%20become%20too%20thick.

    https://www.herzindagi.com/beauty/how-to-make-henna-mehendi-oil-recipe-benefits-for-hair-hair-growth-thin-hair-hair-fall-article-156880

POST A COMMENT