a
Sorry, no posts matched your criteria.
My Bookmarks
  • No bookmark found
Image Alt
 • ত্বকের যত্ন  • এবার ডাবল ক্লিনজিং-এর উপকারিতা নারিকেল তেলে

এবার ডাবল ক্লিনজিং-এর উপকারিতা নারিকেল তেলে

Bookmark CFL(0)
  • ডাবল ক্লিনজিং পদ্ধতিতে আপনি আপনার মুখ সাধারণত দুইবার পরিষ্কার করেন।
  • প্রথম ধাপে ক্লিনজিং এর মাধ্যমে আপনার ত্বকের মৃত কোষগুলো পরিষ্কার করা হয়। দ্বিতীয় ধাপে মুখের ধুলো-ময়লা এবং ঘাম পরিষ্কার করা হয়।
  • ডাবল ক্লিনজিং এর জন্য নারিকেল তেল ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • ডাবল ক্লিনজিং এর সময় মুখের লোমকূপের গোড়া খুলে যায় এবং মুখের যাবতীয় তেল সহজেই পরিষ্কার করা যায়।
  • মুখের ময়লা দূর করতে জাপানীদের ডাবল ক্লিনজিং পদ্ধতি অন্যতম সেরা পদ্ধতি বলে বিবেচিত।
ডাবল ক্লিনজিং এমন একটি পদ্ধতি যেখানে মুখ দুইবার পরিষ্কার করতে হবে। পদ্ধতিটি আসলে খুব সহজ, কিন্তু এর উপকারিতা অনেক।
ডাবল ক্লিনজিং দুই ধাপে করতে হয়। প্রথম ধাপে তেল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করতে হয়। এতে মুখের গ্রন্থিকোষের গোড়ায় গোড়ায় যে তৈলাক্ত ময়লা লুকিয়ে থাকে তা বের হয়ে আসে। দ্বিতীয় ধাপে পানি দিয়ে মুখ পরিষ্কার করতে হয় যাতে মুখের ধুলো-ময়লা এবং ঘাম পরিষ্কার হয়।
বাজারে বিভিন্ন ধরনের ক্লিনজার পাওয়া যায়। কিন্তু ডাবল ক্লিনজিং নারিকেল তেল দিয়ে করলে সবচেয়ে বেশি উপকার পাওয়া যায়। নারিকেল তেল বহু গুণাগুণ সমৃদ্ধ একটি পণ্য। দুই ধাপে সম্পন্ন করা ডাবল ক্লিনজিং আমরা চাইলে পাঁচ ধাপেও করতে পারি। এতে উপকারিতা বেশি পাওয়া যায়।
কেন ডাবল ক্লিনজিং
ত্বকের অসম ভাব এবং ময়লা দূর করতে ডাবল ক্লিনজিং এর চেয়ে ভালো আর কোনো উপায় নেই। ডাবল ক্লিনজিং এর মাধ্যমে ত্বকের পোড়া ভাব, ধুলো-ময়লা সহজেই দূর করা যায়। তাই যদি সুস্থ সুন্দর ত্বক চান, তাহলে ডাবল ক্লিনজিং করানোই ভালো।
সাধারণ ক্লিনজার এর বদলে কিভাবে নারিকেল তেল ক্লিনজার হিসাবে ব্যবহার করবেন
ত্বকে আমরা ক্লিনজিং করি সাধারণত ত্বক থেকে যেন বাইরের ধুলো-বালি এবং অন্যান্য রাসায়নিক পদার্থ পরিষ্কার করে মুখের স্বাভাবিক সৌন্দর্য অক্ষত রাখতে পারি। কিন্তু বাজারের ক্লিনজার বিভিন্ন ধরনের রাসায়নিক পদার্থ দিয়েই তৈরী। সেটা দিয়ে মুখ পরিষ্কার করা মানে ত্বকে আরো কিছু রাসায়নিক পদার্থ যোগ করা।
নারিকেল তেল প্রাকৃতিক ক্লিনজার হিসেবে অসাধারণ কাজ করে। যখন নারিকেল তেল দিয়ে আপনি ডাবল ক্লিনজিং শুরু করবেন তখন এটি আপনার ত্বক থেকে যাবতীয় ময়লা এবং তৈলাক্ত পদার্থ বের করে নিয়ে আসবে। পরের ধাপে মুখ ধুয়ে ফেলার সময় লোমকূপের গোড়া পরিষ্কার হবে এবং মুখের উপর ভেসে থাকা তেল ও দূর হবে।
নারিকেল তেল এন্টিমাইক্রোবিয়াল, এন্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এবং ত্বকের আর্দ্রতা সহজেই ধরে রাখে। সব ধরণের ত্বকেই নারিকেল তেল ব্যবহার করা যায়। তাই জাপানীদের নারিকেল তেল দিয়ে ডাবল ক্লিনজিং করার পদ্ধতিটি নারিকেল তেল দিয়ে ডাবল ক্লিনজিং করার উদাহরণ হিসেবে সর্বজনীনভাবে স্বীকৃত।
জাপানীদের ডাবল ক্লিনজিং পদ্ধতিতে মুখ পরিষ্কার করতে আপনাকে যে ধাপগুলি অনুসরণ করতে হবে তা হলো:
  • মুখে কোনো ধরনের প্রসাধনী মেখে থাকলে তা মুছে ফেলুন এবং হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন। এতে করে আপনার লোমকূপের গোড়া খুলে যাবে।
  • ১ মিনিট ধরে ধীরে ধীরে আপনার ত্বকে নারিকেল তেল খুব ভালোভাবে ঘষুন।
  • সাবান অথবা ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন। ফেসওয়াশ বা সাবানটি প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরী হলে ভালো হয়।
  • আপনি চাইলে টোনার ব্যবহার করতে পারেন।
  • মুখে যে কোনো একটি ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এতে আপনার ত্বকে সমস্ত পুষ্টি ও হাইড্রেশন বজায় থাকবে। এই ধাপটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
সুতরাং, একটি উজ্জ্বল, নরম, কোমল এবং সবশেষে একটি সুন্দর ত্বকের জন্য নারিকেল তেল দিয়ে ডাবল ক্লিনজিং করা সবচেয়ে ভালো উপায়।
ভালো ক্লিনজিং এর উপকারিতা বলে শেষ করা যাবে না। বেশির ভাগ মানুষই তার ত্বকের জন্য ভালো ক্লিনজিং আশা করে। কাজেই সময় নিয়ে আপনার ত্বক পরিষ্কার করুন এবং ত্বকের সৌন্দর্যের ধারাবাহিকতা বজায় রাখুন।
রেফারেন্স:

https://themelanatedmaven.com/japanese-double-cleansing-method/

POST A COMMENT