a
Sorry, no posts matched your criteria.
My Bookmarks
  • No bookmark found
Image Alt
 • ত্বকের যত্ন  • ত্বকের স্বাস্থ্য সহজে বজায় রাখুন নারকেল তেল এবং অ্যালোভেরার সাহায্যে
Coconut and Aloe Vera Blend for skin

ত্বকের স্বাস্থ্য সহজে বজায় রাখুন নারকেল তেল এবং অ্যালোভেরার সাহায্যে

Bookmark CFL(0)
  •  অ্যালোভেরা ও নারিকেল তেলের মিশ্রণ ত্বকের জন্য দারুণভাবে কার্যকরী হতে পারে।
  • অ্যালোভেরা ও নারিকেল তেলের ব্যবহার ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে সাহায্য করে।
  • ভিটামিনে অ্যালোভেরা জেলের ব্যবহার স্বাস্থ্যকর ত্বক নিশ্চিত করে।

অনেকেই আলাদা আলাদাভাবে নারিকেল তেল ও অ্যালোভেরা ব্যবহার করেছেন, কিন্তু কখনো কি এই দুইটি একসঙ্গে কাজে লাগানোর কথা ভেবেছি আমরা? নাহলে আমাদের জানতে হবে, অ্যালোভেরা ও নারিকেল তেলের মিশ্রণ ত্বকের জন্য কীভাবে উপকারী হতে পারে।

অ্যালোভেরা ও নারিকেল তেল ত্বক সুস্থ রাখার জন্য নানাভাবে অবদান রাখতে পারে। অ্যালোভেরায় ভিটামিন এ, ভিটামিন বি, ভিটামিন সি ও ভিটামিন ই, যাতে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টও থাকে। এটার অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামাটরি বৈশিষ্ট্যের কারণে ত্বকের ওপর ভালো প্রভাব ফেলতে পারে। নারিকেল তেলের যেমন আবার ত্বক ও চুলের যত্নে নানাভাবে কাজে লাগানো যায়। দুইটি একসঙ্গে ব্যবহার করলে তাই সেটা থেকে হতে পারে যেমন ময়েশ্চারাইজার, স্ক্রাবার, বডি লোশন ও আরও নানাভাবে এটি কাজে লাগানো যায়।

 

ত্বকের সুস্বাস্থ্যের জন্য কীভাবে নারিকেল তেল ও অ্যালোভেরা ব্যবহার করতে হবে

 

বাজারে যেসব কেমিক্যালযুক্ত, দামি স্কিন কেয়ারের পণ্য পাওয়া যায়, সেগুলর চেয়ে স্বাস্থ্যকর, পুষ্টিগুণসমৃদ্ধ ও সর্বোপরি বাজেটের মধ্যে থাকা নারিকেল তেল ও অ্যালোভেরা ব্যবহার করলে সেটা ভালো ফল দিতে পারে। নিচের পদ্ধতিগুলো পরখ করে ফলটা নিজেই দেখুন। 

 

অ্যালোভেরা কোকোনাট অয়েল ময়েশ্চারাইজার

উপাদান

  • অ্যালোভেরা জেল
  • কোকোনাট অয়েল 
  • এসেনশিয়াল অয়েল

পদ্ধতি

৭৫ গ্রাম নারিকেল তেলের মধ্যে ১০০ গ্রাম কাপ অ্যালোভেরা মেশান। আর সুগন্ধীর জন্য অল্প এসেনশিয়াল অয়েল দিন। যতক্ষণ না পর্যন্ত একটা ক্রিমি ভাব আসবে ততক্ষণ মেশাতে থাকুন। এই মিশ্রণটা একটা এয়ারটাইট কাচের জারে ভরে রাখুন।

কীভাবে ব্যবহার করবেন

ভালো ফল পাওয়ার জন্য এই মিশ্রণটা ঠিক শাওয়ারের পরেই ব্যবহার করুন। বিছানায় যাওয়ার আগে এটি রেখে দিন এবং দেখুন কীভাবে নারিকেল ও অ্যালোভেরার মিশ্রণ আপনাকে শুকনো ত্বক থেকে স্বস্তি দিচ্ছে। 

 

অ্যালোভেরা-কোকোনাট অয়েল স্ক্রাব 

উপাদান

  • নারিকেল তেল
  • র বা হোয়াইট সুগার
  • বিশুদ্ধ অ্যালোভেরা জেল

 

পদ্ধতি 

 বেস হিসেবে নারিকেল তেল ব্যবহার করে এতে হাফ কাপের মতো তেল ও হাফ কাপের মতো র বা হোয়াইট সুগার দিন ও ভালোমতো নাড়ুন। এরপর তাতে এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে দারুণ একটা ব্লেন্ড তৈরি করুন।

 

কীভাবে ব্যবহার করবেন

আলতো করে আপনার মুখের ওপর চোখ ছাড়া বাকি জায়গায় মিশ্রণটা মাখুন। এরপর হালকা গরম  দিয়ে মিশ্রণটা ধুয়ে ফেলুন।

 

অ্যাকনের জন্য অ্যালোভেরা ও নারিকেল তেল

উপাদান 

  • বিশুদ্ধ অ্যালোভেরা জেল 
  • নারিকেল তেল 
  • টি ট্রি এসেনশিয়াল 

পদ্ধতি 

দুই টেবিলচামচ বিশুদ্ধ অ্যালোভেরা, হাফ টেবিল চামচ ভার্জিন নারিকেল তেল এবং ১-২ ড্রপ টি ট্রি এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করুন। যতক্ষণ ব্লেন্ড না হচ্ছে ততক্ষণ ভালোমতো মেশান। 

 

কীভাবে ব্যবহার করবেন

অ্যাকনে সমস্যা প্রতিরোধ করার জন্য ঘুমানোর আগে মুখে রেখে দিন। সকালে উঠে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

 

ত্বকের ভাজ প্রতিরোধ করার জন্য অ্যালোভেরা-নারিকেল তেল

 উপাদান

  • অ্যালোজেল 
  • কোকোনাট অয়েল 
  • শসা

পদ্ধতি

একটা শসা নিয়ে সেটা ছিলে নিন যতক্ষণ না মসৃণ হয়। সেটা অ্যালোজেল ও তেল দিয়ে মাখুন।

 

কীভাবে ব্যবহার করবেন

এই পেস্টটা আপনার ত্বকে ডিপ মেসেজ করুন যতক্ষণ না পর্যন্ত ত্বক পুরোপুরি শুষে না নিচ্ছে। কতটা পার্থক্য হচ্ছে সেটা বোঝার জন্য সপ্তাহে তিন দিন এটা গায়ে মাখুন।

 

নারিকেল তেল ও অ্যালোভেরা মাখার উপকারিতা

অ্যালোভেরা

অ্যালোভেরার বেশ কিছু দারুণ গুণ রয়েছে যা ত্বকের জন্য বেশ উপকারী। ত্বকের জন্য অ্যালোভেরার গুণ অনেক তাই অ্যালোভেরা ও এটি থেকে তৈরি প্রোডাক্টগুলো অনেক জায়গায় ব্যবহার করা হয়। গরম বা শীত যেটাই হোক, এই অ্যালোভেরা জেল সবরকমের ত্বকের জন্য উপযোগী এবং নানাভাবে কাজে লাগানো যায়।

মুখে অ্যালোভেরা মাখার উপকারিতা অনেক। এটার অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াল ও অ্যান্টি ফ্ল্যামাটরি গুণের কারণে এটা অ্যাকনে প্রতিরোধ করে। এটার নির্যাস শরীরে কোলাজেন উৎপাদনে সাহায্য করে এবং ত্বকে বয়সের রেখা পড়তে দেয় না। তার ওপর এতে ১৮ অ্যামিনো এসিড, বি১, বি৩, বি৬ ও ভিটামিন সি থাকে, যেটা ফ্রি র‍্যাডিকেল প্রতিরোধ করে ত্বকে ভাজ পড়তে দেয় না।

ত্বকের জন্য অ্যালোভেরা জেলও নানাভাবে কার্যকরী। এই জেলে যেসব ভিটামিন থাকে তা স্বাস্থ্যকর ত্বক তৈরিতে সাহায্য করে। একই সঙ্গে এটার হিলিং প্রপার্টি সানবার্ন থেকে রক্ষা করে। আর ত্বকের ওপর এই ট্রেন্ড ব্যবহারের সঙ্গে নরম ও স্মুথ একটা টেক্সচার পাওয়া যাবে।

 

নারিকেল তেল 

অ্যালোভেরা্র মতো নারিকেল তেলও ত্বকের যত্নে মোটামুটি আবশ্যকীয় একটা পণ্য। ভার্জিন কোকোনাট অয়েল ন্যাচারাল সানব্লক, ময়েশ্চারাইজার, অ্যান্টি এজিং ক্রিম হিসেবে নানাভাবে ত্বকের উপকার করে।

 প্রতিদিনকার ত্বকের যত্নে নারিকেল তেল অনেকভাবে কাজে দেয়। এটাতে ফ্যাটি এসিড, লরিক এসিড থাকে যাতে অ্যান্টি ব্যাক্টেরিয়াল গুণ আছে। অ্যালোভেরার মতো এটা অ্যাকনেও প্রতিরোধ করে। এটা ত্বকের ওপরের দিকে ফ্যাটি লিপিডের জরুরি একটা বলয় তৈরি করে। নারিকেল তেলের পুষ্টিগুণ তাই ত্বকের নিয়মিত ব্যবহারের জন্য ভালো।

 

নারিকেল তেলের আরেকটা গুণ হচ্ছে এর ইলাস্টিসিটি বা স্থিতিস্থাপকতা। এতে আছে ভিটামিন ই যা শরীরের স্ট্রেচ মার্ক কমায় ও ত্বককে কুঁচকে যাওয়া থেকে রক্ষা করে। চুলে নারকেল তেল এবং অ্যালোভেরার উপকারিতা যাচাই করে দেখুন। অবশ্যই, আপনি হতাশ হবেন না!


আপনার দৈনন্দিন ত্বকের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে সহায়তা করবে এমন কিছু দৈনন্দিন জীবনের হ্যাক সম্পর্কে শিখতে আমাদের বডি কেয়ার ব্লগ বিভাগটি দেখুন।

 

 বহুল আলোচিত প্রশ্ন

 ১। মুখে কি নারিকেল তেলের সঙ্গে অ্যালোভেরা ব্যবহার করা যায়?

 হ্যাঁ, অ্যালোভেরা ও নারিকেল তেল মুখে ব্যবহার করা যায় যদি না আপনার মুখে বড় পোরস না থাকে। কিছু ক্ষেত্রে এটা ত্বকের রোমকূপ বন্ধ করে দিতে পারে। সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে শুষ্ক ত্বকে ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ব্যবহার করা।ত্বকের ভালোর জন্য অ্যালোভেরা ও নারিকেল তেল ত্বকে দিয়ে সারা রাত রেখে দিন। একই সঙ্গে এই মিশ্রণ এক্সফোলিয়েট করে মৃত চামড়া তুলে ফেলতেও বেশ কার্যকর।

 

২। নারিকেল তেল ও অ্যালোভেরা কেন ত্বকের জন্য ভালো?

 নারিকেল তেল ও অ্যালোভেরা ত্বক ও চুলের জন্য বেশ ভালো। ভিটামিন সমৃদ্ধ হওয়ায় অ্যালোভে্রা ও নারিকেল তেল ত্বকের বুড়িয়ে যাওয়া প্রতিরোধ করে।নারিকেল তেলের সঙ্গে অ্যালোভেরা হেয়ার ফলিকলের ভেতর থেকে পুষ্টি যোগায় ও চুলকে করে নরম ও কোমল।

 

৩। আমরা কি প্রতিদিন ত্বকে নারিকেল তেল ব্যবহার করতে পারি?

 ত্বকের ভালোর জন্য প্রতিদিন অ্যালোভেরা ব্যবহার করা যায়। পিম্পল ফ্রি, ট্যান ফ্রি ত্বকের জন্য অ্যালোভেরা সরাসরি বা অন্য কিছুর সঙ্গে ত্বকে মেশান। শুধু খেয়াল রাখবেন, বাজার থেকে কেমিক্যালযুক্ত উপাদান নয়, প্রাকৃতিক কিছু ব্যবহার যাতে করা হয়।

 

৪। অ্যালোভেরা কি দাগ ও স্ট্রেচ মার্ক তুলে ফেলতে পারে?

 অ্যালোভেরা স্কিন টিস্যু রিজেনারেট করে এবং এর অনেক হিলিং প্রপার্টি আছে। পাতা থেকে ফ্রেশ জেল নিয়ে যেখানে দাগ আছে সেখানে ২০-৩০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। এটা প্রতিদিন করুন এবং হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। একই সঙ্গে অ্যালুভেরা কোলাজেন উৎপাদনে সাহায্য করে যেটা ত্বকের দাগ ঠেকায়।

 

Reference:

https://www.healthline.com/health/aloe-vera-hair-mask

https://www.google.com/amp/s/m.femina.in/beauty/skin/how-to-use-coconut-oil-for-your-face-133694.amp

https://littlegreendot.com/nourish-yourself-with-aloe-and-coconut/

 

POST A COMMENT