a
Sorry, no posts matched your criteria.
My Bookmarks
  • No bookmark found
Image Alt
 • ত্বকের যত্ন  • শীতে বিশেষ উপলক্ষের জন্য স্কিন-কেয়ার রুটিন
Winter Skin Care Routine

শীতে বিশেষ উপলক্ষের জন্য স্কিন-কেয়ার রুটিন

Bookmark CFL(0)
  • শীতকালে বাতাসে আর্দ্রতার অভাবে ত্বক শুষ্ক হয়ে যায়।
  • শীতে ত্বকের শুষ্কতা দূর করতে নিয়মিত শীতকালীন স্কিন কেয়ার রুটিন মেনে চলুন।
  • শীতে ত্বককে সুন্দর ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল রাখতে কিছু শীতকালীন ত্বক পরিচর্যা টিপস অনুযায়ী ত্বকের যত্ন নিন।

শীতকাল ঋতু হিসেবে অনেকেরই প্রিয় হলেও এই সময়ে ত্বকের সমস্যা সবচেয়ে বেশি বেড়ে যায়। বাতাসের আর্দ্রতার অভাবে এবং ঘরের আবহাওয়ার সাথে বাইরের আবহাওয়ার পার্থক্য থাকার কারণে ত্বক এবং চুল হয়ে ওঠে শুষ্ক। ফলে ত্বক তার স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারায়। তাই এ সময় ত্বক ও চুলের প্রয়োজন হয় কিছু বাড়তি পরিচর্যার। বিশেষ করে শীতে বিয়ে, পিকনিক ইত্যাদি নানা ধরনের বিশেষ অনুষ্ঠান লেগেই থাকে। তাই নিজেকে সুন্দর ও আকর্ষণীয় করে তুলতে এই সময়ে আপনার ত্বকের যত্নে চাই বিশেষ শীতকালীন স্কিন কেয়ার রুটিন।

শীতে ত্বকের চাই প্রাকৃতিক ভাবে যত্ন।

এ সময় ত্বকের যত্নে কিছু বিশেষ টিপস আছে যেগুলো নিয়মিত মেনে চললে কঠিন শীতেও আপনার ত্বক থাকবে ময়েশ্চারাইজড ও হাইড্রেটেড।

১। কুসুম গরম পানি ব্যবহার করুন- 

শীতে তাপমাত্রা যখন কমে যায় তখন গোসল করা, হাত মুখ ধোয়ার জন্য গরম পানিই ব্যবহার করতে হয়। তবে স্বাস্থ্যোজ্জ্বল ত্বকের জন্য মুখে কখনো গরম পানি ব্যবহার করবেন না। চেষ্টা করবেন কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলতে। গরম পানি ত্বক দ্রুত শুষ্ক করে দেয়।

এরপর আপনি যদি ঠিক মতো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার না করেন তাহলে ত্বক ফেটে যেতে পারে এবং এখান থেকে একজিমাও দেখা দিতে পারে। তাই কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে অবশ্যই সিরামিড ও হাইয়ালুরনিক এসিড যুক্ত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এতে করে ত্বকে ময়েশ্চার সিল থাকবে।

২। ত্বকে এবং শরীরে পানির পরিমাণ বজায় রাখুন- 

শীতে বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ কম থাকে বলে ত্বক ও শরীর থেকে পানি দ্রুত শুকিয়ে যায় । তাই ত্বকে পানির পরিমাণ বজায় রাখতে এ সময় নিয়মিত পানি খাওয়া জরুরি। সেই সাথে ঘরের ভিতরের আবহাওয়া যেন শুষ্ক না থাকে সেই দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। তাহলে ত্বকে পানির পরিমাণ বজায় থাকবে।

৩। ত্বক পরিচর্যায় সঠিক পণ্য বেছে নিন- 

শীত এবং গরমে একই পণ্য কিন্তু ত্বকের যত্নে ব্যবহার করা যায় না। শীতে ত্বকের উজ্জ্বলতা ও স্বাস্থ্যের দিক খেয়াল রাখতে হলে সঠিক পণ্য বাছাই করতে হবে। বিশেষ করে শুষ্ক ত্বকের জন্য এমন ধরনের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে যাতে করে ত্বকের প্রাকৃতিক আর্দ্রতার পরিমাণ বজায় থাকে। একনে প্রোন ত্বকের জন্য হাইয়ালুরনিক এসিড, সিরামিড বা গ্লিসারিন যুক্ত পণ্য ব্যব্যহার করুন।

৪। ত্বককে সুরক্ষিত রাখুন- 

শীতকালে বাইরে যাবার সময় অবশ্যই ত্বকের সুরক্ষায় গ্লাভস, টুপি এসব ব্যবহার করুন। বাইরের অতিরিক্ত ঠান্ডা হাওয়া মুখে লাগতে দেবেন না। এছাড়া বাইরে গেলে অবশ্যই সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। শীতকালে বাইরে রোদ না থাকলেও সূর্যের ক্ষতিকর ইউভি রশ্মি ঠিকই থাকে যা আপনার ত্বকের জন্য দারুণ ক্ষতিকর। টাইটানিয়াম ডাই অক্সাইড বা জিংক অক্সাইড সমৃদ্ধ সানস্ক্রিন এক্ষেত্রে আপনার ত্বকের জন্য উপকারি।

৫। কম করে এক্সফলিয়েট করুন- 

শীতে ত্বকে স্ক্রাবিং বা এক্সফলিয়েশনের পরিমাণ কমিয়ে দিন। স্ক্রাবিং এর মাধ্যমে যদিও ত্বকের মৃত কোষ দূর হয়। কিন্তু শীতে ত্বক শুষ্ক থাকায় অতিরিক্ত স্ক্রাবিং এর কারণে ত্বক আরো বেশি শুষ্ক হয়ে  ওঠে। ফলে ত্বকে ক্ষতি হতে পারে। তাই শীতে তৈলাক্ত ত্বকের জন্য সপ্তাহে একদিন এক্সফলিয়েশনই যথেষ্ট। তবে শুষ্ক ত্বকে শীতকালে এক্সফলিয়েশন কম করাই ভালো।

৬। হাতের যত্ন নিন- 

ত্বকের তুলনায় হাতে অয়েল গ্ল্যান্ড কম থাকে। তাই হাত মুখের ত্বকের তুলনায় দ্রুত রুক্ষ হয়ে যায়। তাই শীতে হাতের ত্বকের সুরক্ষা সব সময় ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

৭। পায়ের যত্ন নিন- 

পায়ের যত্নে শীতকালে সবসময় পেট্রোলিয়াম জেলি বা গ্লিসারিন যুক্ত ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এছাড়া মাঝেমধ্যে পা এক্সফলিয়েট করুন যাতে পা ময়শ্চারাইজার শুষে নিতে পারে সহজেই।

এসব ছাড়াও কিছু টিপস আছে যা শীতকালীন ত্বকের যত্নে  প্রয়োজনীয়। শীতকালে কখনোই ভেজা কাপড় বেশিক্ষণ পরে থাকবেন না, এতে করে ত্বকে চুলকানি হতে পারে। তাছাড়া প্রতিদিনের একটি শীতকালীন স্কিন কেয়ার রুটিন) মেনে চলুন। নির্দিষ্ট কিছু ত্বক চর্চার রুটিন মেনে চললেই আপনার ত্বক অন্য সময়ের মতোই উজ্জ্বল ও লাবণ্যময় থাকবে।

শীতকালীন ত্বক পরিচর্যায়  প্রতিদিন কিছু নির্দিষ্ট জিনিস মেনে চলতে হবে। যেভাবে আপনার শীতকালীন ত্বক পরিচর্যার রুটিন সাজাতে পারেন- 

১। ক্লিনজার ব্যবহার করুন-

শীতকালীন ত্বক পরিচর্যায় ত্বকে ক্লিনজার ব্যবহার করুন। যেহেতু ত্বক এমনিতেই এ সময় শুষ্ক থাকে তাই এমন ধরনের ক্লিনজার ব্যবহার করুন যা ত্বককে খুব বেশি শুষ্ক করে তুলবে না।

২। ভিটামিন সি সিরাম- 

ভিটামিন সি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করে। ত্বকের গভীরে পুষ্টি যোগাতে ভিটামিন সি সিরাম অত্যন্ত কার্যকর উপাদান।

৩। ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন- 

ভিটামিন সি সিরাম ব্যবহার করার কিছুক্ষণের মধ্যেই ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এটি ছাড়া আপনার স্কিন কেয়ার রুটিন অসম্পূর্ণ থাকবে।

৪। হাইড্রেটিং অয়েল- 

ত্বক যদি অতিরিক্ত শুষ্ক থাকে তাহলে ত্বকে হাইড্রেশনের জন্য ময়েশ্চারাইজার লাগানোর কিছুক্ষণ পর যে কোনো হাইড্রেটিং অয়েল ব্যবহার করতে পারেন।

৫। নাইট ক্রিম- 

রাতে ত্বকে যে কোনো ভারি ময়েশ্চার যুক্ত নাইট ক্রিম মেখে ঘুমালে সারারাত ত্বকের গভীরে ময়েশ্চার পৌঁছে পুষ্টি যোগায়। তাই শীতকালীন স্কিন কেয়ার রুটিনে

নাইট ক্রিম জরুরি।

শীতে ত্বকের শুষ্কতার কারণে নানা রকম সমস্যা দেখা দেয়। ত্বকের সুস্থতা বজায় রাখতে তাই শীতকালীন স্কিন কেয়ার রুটিন খুবই জরুরি। প্রতিদিনের স্কিন কেয়ার রুটিন মেনে চললে এই সমস্ত সমস্যা থেকে খুব সহজেই মুক্তি পাওয়া যায়।

এফএকিউ 

১। কীভাবে শীতে প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের যত্ন নিতে হয়?

শীতে সবচেয়ে সাধারণ প্রশ্নগুলোর একটি হচ্ছে, কীভাবে প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের যত্ন নিতে হয়। সেজন্য আপনি কিছু শীতকালীন রূপচর্চার টিপস যেমন ত্বক আর্দ্র রাখা, অয়েল বেজড রিচ কোনো ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করা, রুমে হিউমিডিফায়ার রাখা, কেমিক্যাল বেজড সোপ ব্যবহার না করা এবং সর্বোপতি নারিকেল তেলের মতো প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করা ইত্যাদি মেনে চলতে পারেন।

২। কীভাবে শীতে ত্বক ময়েশ্চারাইজ করা যায়?

কীভাবে শীতে আপনার ত্বকের যত্ন নেবেন তার একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে ময়েশ্চারাইজিং। এটার উত্তর হচ্ছে আপনার শুষ্ক ত্বকের জন্য একটা সফট তোয়ালে ব্যবহার করা এবং সেই সঙ্গে হাইড্রেটিং ময়েশ্চারাইজার রাখা। তাই এমন একটা বাম ব্যবহার করুন যেটা আপনার গরমের লোশনের চেয়ে ভারি।

৩। শীতে কেন ত্বক শুষ্ক হয়?

শীতে ত্বকের শুষ্কতার বড় একটা কারণ হচ্ছে শুকনো বাতাস ত্বকের ওপরের দিকের আর্দ্রতা শুষে নেয়। একই সঙ্গে ত্বক যদি পানি বা কেমিক্যালের সংস্পর্শে আসে, তাহলেও শুকিয়ে যেতে পারে।

৪। শীতে ত্বক শুকিয়ে যাওয়ার ন্যাচারল রেমেডি কী?

বেশ কিছু উইন্টার স্কিনকেয়ার হোমমেড টিপস আছে যেগুলো শুকনো ত্বকের জন্য কাজে আসতে পারে। সূর্যমুখি বীজের তেল, ওটমিল বাথ, নারিকেল তেল, মধু, পেট্রোলিয়াম জেলি, অ্যালু ভেরা এবং অবশ্যই অনেক পানি পান ত্বকের শুষ্কতার সমাধান করতে পারে।

৬। আপনার মুখে সারা রাত কি নারিকেল তেল দিতে পারবেন?

যাদের ত্বক বেশি শুকনো বা ভঙ্গুর তারা ত্বকে নারিকেল তেল মেখে সারা রাত রেখে দিতে পারেন।

Reference:

https://www.stylecraze.com/articles/7-basic-face-care-tips-you-need-to-follow-in-winter/

https://www.forbes.com/sites/thecut/2016/02/02/the-ultimate-guide-to-winter-skin-care/?sh=6b88ccf93e70

https://heatherrinder.com/blog/winter-skincare-routine-for-hydrated-skin

https://www.makeup.com/makeup-tutorials/makeup-tutorials/winter-skin-care-tips

https://www.chiroone.com/blog/10-natural-tips-for-winter-skin-care/

https://www.goodhousekeeping.com/beauty/anti-aging/tips/a23739/winter-dry-skin-remedies/#:~:text=Use%20a%20thicker%20moisturizer%20in,%2C%20flaking%20skin%2C%22%20Dr.

https://www.medicalnewstoday.com/articles/319555#home-remedies-for-dry-skin

https://www.healthline.com/health/beauty-skin-care/coconut-oil-on-face-overnight#:~:text=The%20bottom%20line,overnight%20treatment%20for%20some%20people.&text=However%2C%20if%20you’re%20allergic,coconut%20oil%20on%20your%20face.

 

POST A COMMENT