a
Sorry, no posts matched your criteria.
My Bookmarks
  • No bookmark found
Image Alt
 • মুখের যত্ন  • ব্রণের দাগ নিয়ে বিড়ম্বনা? নারিকেল তেল ব্যবহার করে এর থেকে মুক্তি পান সহজেই

ব্রণের দাগ নিয়ে বিড়ম্বনা? নারিকেল তেল ব্যবহার করে এর থেকে মুক্তি পান সহজেই

Bookmark CFL(0)

বলুন তো, ব্রণ বা পিম্পল ব্রেকআউট এর চেয়ে আরও খারাপ ব্যাপার কী? ব্রণের দাগ, যা দূর করা অত্যন্ত কঠিন। ত্বকের বিভিন্ন ধরণের পরিচিত সমস্যা, যেমনঃ ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, পিম্পলস (জিটস), এবং সিস্ট ইত্যাদি হচ্ছে ব্রণের কিছু সাধারণ রূপ। 

ব্রণের দাগ দূর করা নিয়ে আমাদের প্রায়শয়ই ভাবতে দেখা যায়, কারণ ব্রণের দাগ হতে পারে আমাদের জন্য অস্বস্তির কারণ। এই সমস্যাগুলো সাধারণত দেখা যায় বয়ঃসন্ধির সময়টাতে। তাই ব্রণের দাগ দূর করার কিছু প্রাকৃতিক উপায় জেনে রাখা আপনার জন্য জরুরি। তবে ব্রণের দাগ দূর করার পদ্ধতির ব্যাপারে আলাপ করার আগে, চলুন জেনে নেওয়া যাক ব্রণ বা পিম্পল মার্কসের কিছু প্রধান কারণ সম্পর্কে। 

 

ব্রণের দাগ কীভাবে সৃষ্টি হয়? 

ব্রণকে মাঝে মাঝে শরীরের স্বাভাবিক নিরাময় প্রক্রিয়ার ফলাফল ধরা হয়ে থাকলেও, ব্রণ ও ব্রণের দাগ পড়ার পেছনে আরও নানা ধরণের কারণ থাকতে পারে।

ত্বকের উপরের পোর বা ফলিকলের আশেপাশে অতিরিক্ত তেল এবং ময়লা জমে গেলে সেগুলো আটকে যেতে পারে। এর ফলে ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস, সিস্ট এবং নোডুলস ইত্যাদির আকারে ব্রণ দেখা দিতে পারে। এদের মধ্যে ব্ল্যাকহেডস এবং হোয়াইটহেড সাধারণত কোন দাগ ফেলে না। তবে প্রদাহজনিত বা ইনফ্লামেটরি ব্রণ দেখা দিলে এটি আপনার ত্বকে দাগ ফেলে যেতে পারে। 

এছাড়াও, আমাদের ত্বকে কোলাজেনের আধিক্য বা স্বল্পতার কারণে ব্রণের দাগ হতে পারে। কোলাজেন হচ্ছে একটি প্রোটিন জাতীয় উপাদান, যা আমাদের ত্বক ব্রণের ক্ষয় থেকে নিরাময় হওয়ার সময় উৎপাদন করে থাকে।

ব্রণের দাগ পড়ার পরধান কারণগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়ার পর আসুন জেনে নেওয়া যাক ব্রণ দূর করার কিছু ঘরোয়া পদ্ধতি সম্পর্কে। ব্রণের দাগের প্রাকৃতিক প্রতিকার নিয়ে কথা বলার সময়, বিশেষজ্ঞরা প্রথমে যে নামটি ব্যবহার করেন তা হল নারিকেল তেল, কারণ ব্রণের দাগের জন্য নারিকেল তেল ব্যবহারের রয়েছে নানবিধ কার্যকরী সুবিধা। আসুন আলোচনা করা যাক কীভাবে নারিকেল তেল ব্রণের দাগ মুছে ফেলতে সহায়তা করতে পারে।

 

ব্রণের দাগ দূর করতে নারিকেল তেল কেন কার্যকর?

নারিকেল তেল ব্রণযুক্ত ত্বকের জন্য ভাল কারণ এতে ভিটামিন ই এবং প্রোটিন রয়েছে, যা কোষের পুনঃবৃদ্ধির পাশাপাশি ত্বকের ছিদ্রগুলো খুলতে সহায়তা করে। নারিকেল তেল সানবার্ন ও ক্ষতের চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে এবং  পাশাপাশি এর অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্যগুলো ব্রণের দাগ অপসারণ করে। অন্যদিকে, নারিকেল তেলে রয়েছে লরিক অ্যাসিড; এটিও ব্রণের দাগ দূর করতে দারুণ কাজ করে।

তবে চলুন দেখে নেওয়া যাক আমরা কীভাবে ব্রণের দাগের জন্য নারিকেল তেলকে ব্যবহার করতে পারি।

নারিকেল তেল ব্যবহার করে ব্রণের দাগ অপসারণ

আমরা ইতিমধ্যে জেনে গেছি নারিকেল তেল ব্রণের দাগের জন্য একটি দারুণ ঘরোয়া প্রতিকার। ব্রণের দাগ দূর করার জন্য নারিকেল তেল ব্যবহারের দুটি উপায় রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলো সম্পর্কে।

 

স্টিম বাথের পর নারিকেল তেল

ব্রণের দাগ থেকে মুক্তি পেতে নারিকেল তেল ব্যবহারের জন্য এই পদক্ষেপগুলি ফলো করুন:

  • একটি পাত্রে পানি নি্যে বাষ্প ওঠা শুরু না হওয়া পর্যন্ত গরম করুন
  • আপনার মাথা এবং কাঁধের উপর একটি তোয়ালে রাখুন। এটি আপনার মুখের দিকে বাষ্পকে গাইড করতে সহায়তা করবে। বাষ্প থেকে যথেষ্ট পরিমাণে দূরে দাঁড়ান যাতে বাষ্পের তাপ আপনার ত্বকের কোন ক্ষতি না করে
  • পাঁচ মিনিট পরে তোয়ালেটি সরান। আপনার ত্বকের ছিদ্রগুলো এর মধ্যে পুরোপুরি খুলে যাবে
  • এবার অল্প পরিমাণে নারিকেল তেল নিন (এক চা চামচ) এবং এটি আপনার মুখের উপর বৃত্তাকার গতিতে আলতোভাবে ম্যাসাজ করুন
  • একটি ফেস টাওয়েল নিন এবং একে হালকা গরম পানিতে ভিজিয়ে কয়েক মিনি্ট আপনার মুখের উপর হালকাভাবে প্রেস করুন
  • একটি টাওয়েল দিয়ে ত্বক থেকে নারিকেল তেলের সব অবশিষ্টাংশ মুছে ফেলুন

ব্রণের দাগ অপসারণ করতে আপনি বাড়িতে বসেই স্টিম বাথ নেওয়ার পর ত্বকে নারিকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন।

 

উষ্ণ নারিকেল তেল

ব্রণ দূর করতে নারিকেল তেল সরাসরিও ত্বকে ব্যবহার করা যায়। আপনার ত্বক যদি শুষ্ক হয়ে থাকে, তাহলেও এই পদ্ধতিটি একটি ভালো সমাধান হতে পারে। এই ধাপগুলো ফলো করুনঃ

  • এক চা চামচ নারিকেল তেল নিয়ে কিছুক্ষণ গরম করুন
  • যেসব স্থানে ব্রণের দাগ রয়েছে সেসব জায়গায় সরাসরি নারিকেল তেল মেখে নিন
  • বৃত্তাকারভাবে এই জায়গাযগুলো নারিকেল তেল ম্যাসাজ করুন
  • আপনার মুখ থেকে নারিকেল তেলের সব অবশিষ্টাংশ মুছে ফেলুন

আপনি যদি ব্রণের দাগের সমস্যায় ভুগতে থাকেন, তবে এই পদ্ধতিতে আপনি নারিকেল তেলের হাইড্রেটিং ও ব্রণ দূর করার গুণাগুণগুলো উপভোগ করতে পারেন। ব্রণের ঘরোয়া অপসারণে এই পদ্ধতিটি কাজ করে চমৎকারভাবে।

 

ব্রণের দাগ পড়া প্রতিকারের কিছু টিপস

  • আপনার মুখের ব্রণ বা পিম্পলকে নখ দিয়ে খোঁচাবেন না
  • ন্যাচারাল হিলিং প্রোডাক্ট ব্যবহার করুন
  • একটি ভাল স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার চেষ্টা করুন
  • প্রচুর পরিমাণে পানি পান করুন এবং বেশি পরিমাণে চিনি গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকুন
  • সরাসরি রোদ এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন। 
  • আপনার বালিশের কাভারগুলো পরিষ্কার রাখুন

 

আপনি যদি ব্রণের দাগের জন্য কোন ঘরোয়া প্রতিকারের সন্ধান করে থাকেন, তবে নারিকেল তেল ব্যবহার করে দেখুন। এটি আপনার ত্বকে পুষ্টি যোগায় এবং ময়েশ্চারাইজ করে, রাখে স্বাস্থ্যকর। সুতরাং, আপনি কোনও দ্বিধা ছাড়াই আপনার ত্বকের যত্নের সঙ্গী হিসাবে নারিকেল তেলকে বেছে নিতে পারেন।

 

সাধারন জিজ্ঞাসা

 

নারিকেল তেল কি ব্রণের দাগ অপসারণে সাহায্য করে?

হ্যাঁ, নারিকেল তেল ব্রণর দাগ থেকে মুক্তি পেতে সহায়তা করে। নারিকেল তেল ব্রণ-প্রবণ ত্বকের জন্য ভালো কারণ এতে ভিটামিন ই এবং প্রোটিন রয়েছে যাদের উভয়ই কোষের পুনঃবৃদ্ধির পাশাপাশি ত্বকের ছিদ্রগুলো খুলতে সহায়তা করে। এছাড়া এতে লরিক অ্যাসিডও রয়েছে যা ব্রণের দাগ দূর করে।

 

ব্রণের দাগের জন্য নারিকেল তেল কীভাবে ব্যবহার করব?

আপনি দুটি পদ্ধতিতে ব্রণের দাগ অপসারণ করতে নারিকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন। আপনার মুখে স্টিম বাথ নেওয়ার পরে, আপনি আপনার ব্রণের দাগগুলোতে নারিকেল তেলকে প্রয়োগ করতে পারেন। অথবা আপনি সামান্য নারিকেল তেল গরম করে সরাসরিও আপনার ব্রণের দাগগুলোতে ব্যবহার করতে পারেন।

 

ব্রণের দাগ দূর করতে সবচেয়ে কার্যকর তেল কোনটি?

ব্রণের দাগ দূর করতে নারিকেল তেল দারুণভাবে কাজ করে। পাশাপাশি ল্যাভেন্ডার বা টি ট্রি অয়েলের মতো এসেনশিয়াল অয়েলগুলোও চমৎকার কাজ করে।

 

সূত্র:

https://www.femina.in/beauty/skin/how-to-get-rid-of-acne-scars-132499.html

https://vitagene.com/blog/coconut-oil-for-acne/

https://www.healthline.com/health/beauty-skin-care/coconut-oil-for-scars

https:///littlethings.com/lifestyle/coconut-oil-for-acne-scars

 

 

POST A COMMENT